নিজস্ব প্রতিবেদক: আইপি টিভির আবেদন যাচাই-বাছাই করে চলতি মাসের মধ্যেই অনুমোদন দেয়া হবে। তবে তাদেরকে সংবাদ সম্প্রচারের অনুমতি দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। সচিবালয়ে আজ (সোমবার) এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশে বহু আইপি টিভি চালু আছে এবং বহু আইপি টিভি আসবে বা হবে। যে যার মতো করে সংবাদ পরিবেশন করে, বিভ্রান্তি ছড়াবে এটি কাম্য নয়। সুতরাং যে নীতিমালা পাশ হয়েছে সেখানে বলা হয়েছে আইপি টিভি রেজিষ্ট্রেশনের অনুমোদন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় দেবে। তবে তারা সংবাদ পরিবেশন করতে পারবে না।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা খুব সহসা অনুমোদন দেবো। অনুমোদন দিলেও কোনো আইপি টিভি সম্প্রচার নীতিমালা অনুযায়ী সংবাদ পরিবেশন করতে পারবে না। কারণ সংবাদ পরিবেশন করতে আমাদের মূলধারার টিভিগুলোও  শুরুতে সংবাদ পরিবেশনের অনুমোদন পায় না। প্রথমে ৬ মাস এক বছর চালানোর পর আবার তাদের সংবাদ পরিবেশনের জন্য আবেদন করতে হয়, তখন তারা অনুমোদন পায়।’

বিতর্কিত ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর ইস্যুতে একটি আইপি টিভি বন্ধ হয়েছে, দেশে অসংখ্য আইপি টিভি আছে যেগুলোর কোন অনুমোদন নেই, সেগুলোর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না জানতে চাওয়া হয় তথ্যমন্ত্রীর কাছে।

তিনি বলেন, ‘প্রথমত দেশে কোন আইপি টিভির অনুমোদন নেই। আমরা ইত্যোমধ্যেই রেজিষ্ট্রেশন দেয়া শুরু করেছি এবং আবেদন আহবান করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ৬০০ মতো আবেদন পড়েছে। আমরা খুব সহসা এ মাসের মধ্যেই অনুমোদন দেবো। যেহেতু আমরা অনুমোদন দেয়া শুরু করিনি তাই কোনটার অনুমোদন নাই।’ 

অন্য সবার মতো হেলেনা জাহাঙ্গীরের আইপি টিভিরও অনুমোদন নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কিছু আইপি টিভির বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ আছে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা সময় সময় ব্যবস্থা গ্রহণ করি। কিছু কিছু আইপিটিভি দেখা গেছে ব্যক্তি স্বার্থে পরিচালিত হয়। তারপর নানা ধরনের বিভ্রান্তি ছড়ায়, নানা ধরনের অনুষ্ঠান প্রচার করে, সংবাদ পরিবেশন করে। এ ধরনের কোন অভিযোগ আমাদের নজরে আসে, তাহলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করি। ইত্যোমধ্যে অনেকগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তার ক্ষেত্রেও একই ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *