নিউজরুম ৭১॥ বুধবার দক্ষিণখানে গুলি করে ব্যবসায়ীকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার জাপানি হান্নানের আরো এক সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দক্ষিণখান এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে, এই হত্যায় গ্রেফতার ৮ আসামির মধ্যে মালেক বাদে বাকিদের রিমান্ড শেষ হয়েছে। আজ তাদের আদালতে হাজির করা হবে।

২৪ মার্চ সকালে বালু ফেলাকে কেন্দ্র করে নিজ বাসার সামনে প্রকাশ্যে আমিনুল ইসলাম হান্নান গুলি করে হত্যা করে আব্দুর রশিদকে। ঘটনার দিনই দক্ষিণখানের বাসা থেকে গ্রেফতার হন জাপানি হান্নান ও তার ৬ সহযোগী। পরে রাতে গ্রেফতার করা হয় আরো একজনকে।

এঘটনায় নিহতের পরিবার থানায় নামসহ ১৩ জন ও বাকি ৭ জন অজ্ঞাতনামাকে আসামী করে মোট ২০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করে। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার রাজধানীর দক্ষিণখান এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। গ্রেফতার হয় আরো একজন।

এদিকে, জাপানি হান্নান সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও একটি মানবাধিকার সংগঠনের মহাসচিব পরিচয়ে বিভিন্ন টেলিভিশনের টকশোতে যান তিনি। বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে অটো পার্টস আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান চালাতেন বলেও দাবি করে সে। 

তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বলছেন, সেকেন্ডহ্যান্ড মোটর সাইকেল বিক্রি ও সিটি কর্পোরেশনের কাছ থেকে ইজারা নিয়ে পাবলিক টয়লেট চালাতো হান্নান।

পুলিশ বলছে, ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ হত্যার আগে দশ টাকা নিয়ে এক অটো রিক্সা চালককে গুলি করেছিল হান্নান। এছাড়া এলাকার নাম পরিবর্তন নিয়েও বেশ কিছু অভিযোগ রয়েছে হান্নানের বিরুদ্ধে।  

মামলায় জ্ঞাত-অজ্ঞাত ২০ আসামীর মধ্যে এখন পর্যন্ত ধরা পরেছে মাত্র ৯ জন। বাকিরা পলাতক থাকলেও খুব শিগগিরি তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানায় পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *