ষ্টাফ রির্পোটার, নিউজরুম ৭১॥ নীতিমালা লংঘন করে কোটি কোটি টাকার ঘুষ বাণিজ্যের মাধ্যমে কমিশনার, উপকর কমিশনার ও সহকারী কর কমিশনার পদে বদলির অভিযোগ উঠেছে প্রথম সচিব (কর) শাহেদুজ্জামান, প্রথম সচিব(কর) তার পিএ শাহাবুদ্দিন মিয়া ও কর ক্যাডারের সদস্য কর প্রশাসন ও মানব সম্পদ ব্যবস্হাপনা শাখার দ্বিতীয় সচিব সেলিনা আক্তার সহ আরো বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। জানা যায় করোনাকালীন সময়ে তড়িঘড়ি করে ১৮৫জন কর্মকর্তাকে বিভিন্ন কর অঞ্চলে বদলি করা হয়। বদলি বাণিজ্যের টাকা ভাগাভাগি সময় বিষয়টি ফাঁস হয়।

বদলি প্রজ্ঞাপনে (৬ অক্টোবর ২০২০) দেখা যায় সহকারী কর কমিশনার খুরশিদ আলমকে কর অঞ্চল খুলনা থেকে কর অঞ্চল ময়মনসিংহ বদলি করা হয়েছে। অথচ তিনি বর্তমানে কর্মরত আছেন কর অঞ্চল রংপুরে। কর অঞ্চল ১৫ ঢাকা এর বর্তমান কর কমিশনার একেএম বদিউল আলম যাকে বদলি করা হয়েছে কর অঞ্চল ১ঢাকায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর কমিশনার জানান বদিউল আলম বিসিএস ১৩তম ব্যাচের সদস্য। চলতি দায়িত্বে তাকে ২.৩০কোটি টাকার লেনদেনে জোন-১ ঢাকায় বদলি করা হয়েছে।

যেখানে বিসিএস ৯ম ব্যাচের সিনিয়র সদস্যকে বাদ দিয়ে জুনিয়রকে বদলি করা হয়।

অভিযোগ উঠেছে প্রতিটি অর্ডারে ভুল রয়েছে , যা এন বি আর চেয়ারম্যানকে দিয়ে তড়িঘড়ি করে সাইন করিয়েছে বদলি বাণিজ্যের চক্রটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *