নিউজরুম ৭১ ॥ শহরের যান্ত্রিক জীবন থেকে একটু বিশ্রামের জন্য বা ক্লান্তি দূর করার জন্য আমরা কতো জায়গাতেই না ঘুরতে যাই। তবে সবসময় দূরে কোথাও ঘুরতে যেতে সময় যেমন লাগে খরচও হয় বেশি। তাই কম সময়ে কাছে কোথাও ঘুরে আসতে চাইলে যেতে পারেন সাদুল্লাপুরের গোলাপ গ্রামে। খুব সুন্দর আর মন ভালো করে দেয়ার মতো একটি স্থান এই গোলাপ গ্রাম। ঢাকার খুব কাছে সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নে অবস্থিত সাদুল্লাপুর। মাঠ, পুকুরপাড়, কাঁঠালবাগান ও বসতভিটার চারপাশে সবুজ গাছে ঘেরা অপরুপ গোলাপ ফুলের গোলাপি হাসি আপনার মন জুড়ানোর জন্য যথেষ্ট। যেদিকে চোখ যায় সেদিকেই গোলাপের চাষ। সেখানে না গেলে জানতেই পারবেন না যে পৃথিবীতে এতো ধরনের গোলাপ আছে।

গ্রামের ৯০ ভাগ লোক গোলাপ চাষ করে। পুরো গ্রাম জুড়ে সারা বছরই হয় এই ফুলের চাষ। তবে এখানে গোলাপ ছাড়াও আরো অনেক ফুলের চাষ হয়। ঢাকার বেশির ভাগ গোলাপ ফুল এখান থেকেই আসে। শাহবাগসহ রাজধানীর বিভিন্ন ফুলের বাজারগুলোতে গোলাপের প্রধান যোগান দেন এখানকার চাষিরা। গ্রামে প্রতিদিন সন্ধ্যায় বসে গোলাপের হাট। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অসংখ্য ব্যবসায়ী এসে ভিড় জমান সেখানে। বেচাকেনাও চলে রাত পর্যন্ত।

পরিবার কিংবা বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঢাকার আশেপাশে অল্প সময়ের জন্য কোথাও ঘুরে আসতে চাইলে সাদুল্লাপুর হতে পারে উপযুক্ত জায়গা। যাত্রা পথে যেমন নদীর মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন, তেমনি গোলাপের সৌন্দর্যও দেখতে পারবেন কাছ থেকে।

যাবেন যেভাবেঃ মিরপুর বেড়িবাঁধের বিরুলিয়া ব্রিজ থেকে অটোতে ১০ টাকা ভাড়ায় আরকান বাজার, সেখান থেকে অটোতে ১০ টাকায় সাদুল্লাহপুর কিংবা সরাসরি ২০ টাকায় বিরুলিয়া ব্রিজ থেকে সাদুল্লাহপুর। অথবা ব্রিজের কাছ থেকে নৌকা রিজার্ভ নিয়ে সরাসরি সাদুল্লাহপুরও যাওয়া যায়। আর নিজের গাড়ি থাকলে তো কথাই নেই।

তবে একটা কথা মনে রাখবেন, যে ফুলের বাগানেই যান না কেন বাগানের মালিকের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে যাওয়াই ভালো। তাছাড়া এই ফুলের চাষ করে তাদের সংসার চলে এটাও মাথায় রাখা উচিত।

প্রিয় পাঠক, আপনিও নিউজরুম৭১ অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- news@newsroom71.com এ ঠিকানায়। আপনার নামে লেখা প্রকাশ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *